চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার উপায়।- EshoPoriBD

    আমাদের কাছে অনেকেই জানতে চায় আমরা তাদের বিষয় সমাধান করার জন্য আসলে চোখের পাতা কালো হওয়ার কারণ সাধারণত আমরা বলি করোও যদি এরার্জি থাকে তাহলে চোখের পাতা কালো হয়ে যায়। তার কারণটা হলো যদি লম্বা সময় ধরে কারো এরার্জি থাকে তাহলে কি করে আমরা সমাধান পেতে পারি এর জন্য ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে থাকি। 



    সাধারণত দেখেন যে আমরা কোনো কিছু লেখার সময় কলম দিয়ে যখন খাতায় লিখি তখন কনুই কিন্তু টেবিলের সাথে লেগে থাকে তখন ধীরে ধীরে কনুইয়ের দাগ লাগতে শুরু করে তারপর আমরা যখন নামাজ পড়ে থাকি তখন দেখবেন যে যারা প্রতিনিয়ত নামাজ আদায় করে তাদের কপালে কালো দাগ পরে যায়। 




    জায়নামাজের সাথে ঘসাঘসি করি তা না এটা কিন্তু বারবার দিনশেষে পিলচারের কারণে কালো দাগ পরে স্কিনের ইস্মুট গ্লামারটা নষ্ট হয়ে যায়। তাহলে এই ধরণের রোগীর জন্য সাধারণত লম্বা সময় যাদের এরার্জি থাকে তারা বারবার চোখে হাত দেয় বারবার চোখে হাত দেয় হাত দিতে দিতে আমাদের হাতের ইস্কিন এবং পাতার ইস্কিন দুই ইস্কিনের মধ্যে মিদু প্লিকশন হয়। 



    মানে সংযোগ হওয়ার কারণে সাধারণত চোখের পাতা কালো দাগ সম্ভবনা বেশি থাকে এখন এই একটাই কারণ আরেকটা কারণ হচ্ছে যারা পানি কম খায় এখন দেখেন ঘরের মধ্যে আমরা দেখি অনেকেই পানি সহজেই খেতে চায় না পানি কম খেলে সাধারণত চোখের পাতা কালো হয়ে যেতে পারে। 



    আরেকটি হলো ঘুম রাতের বেলায় যারা কম ঘুমায় তাদের চোখের পাতা কালো দাগ পড়ার কারণ বেশি হতে পারে। ঘুম কিন্তু মানুষের জীবনে আল্লাহর দেয়া নেয়ামত যারা নিয়মিত ঘুমায় তাদের সমস্যা কম হয় কিন্তু এখন সবার জীবনে কি হয় আমরা সাধারণত রাতের বেলায় জেগে যে কোনো কিছু করার মতো অনেক কিছু থাকে যেমন আমরা কম্পিউটার দেখি মোবাইল ব্যবহার করে থাকে রাতের বেলায় জেগে জেগে।



    পড়াশোনা করি রাট জেগে যদি কাজ করা হয় সেও ক্ষেত্রে দেখা যায় চোখের পাতা কালো হয়ে যায় এটা আসলে আপনার নিজের গেছে সমস্যা মানুষের সৌন্দর্যের জন্য এটা একটা সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন এটার জন্য বিশেষ করে তরুণ তরুণীরা এগুলো নিয়ে চিন্তিত হয়ে যায় তারা শরণাপন্ন হয়। 



    এখন কালো হওয়ার চিকিৎসা কিন্তু আমরা রোগীদের উপরে ছেড়ে দেই মানে আপনাকে পর্যাপ্ত পানি খেতে হবে নিয়মিত ঘুমাইতে হবে এবং আপনার শরীরে যদি এরার্জি থাকে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ সেবন করতে হবে। এরার্জি রোগীদের জন্য ড্রপ পাওয়া যায় আপনারা চাইলে সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন আপনার চাহিদা অনুযায়ী ট্যাবলেট ও নিতে পারেন। 


    Also Read: সভ্যতা কি ইতিহাসের সভ্যতা বলতে কি বুঝি।

    যে গ্লাস পড়লে সাধারণত চুল খেতে চুল খেতে তখন হাত যেমন চোখে না যায় কেউ যদি চশমা পরে সাধারণত চশমা পর্বে কেউ যদি চলাফেরা করে যদি ও চুলখাতে মন চায় তখন অনেক সেভ হবে আমাদের কালো দাগ পড়া থেকে মুক্তি পেতে পারি।



    কারও যদি পাওয়ার চশমা ব্যবহার করতে ইচ্ছা হয় তারা চাইলে পাওয়ার চশমা ব্যবহার করতে পারবে আপনার যদি এরার্জি থাকে বাহিরে যখন যাবেন চোখে চশমা ব্যবহার করে বাহিরে যাবেন তাহলে চোখের কালো দাগ পড়া থেকে কিছুটা সেইভ থাকতে পারবেন। আর বেশি করে পানি পান করবেন রাতের বেলা সঠিক সময়ে ঘুমাবেন তাহলে চোখের কালো দাগ পরবে না।

    Post a Comment

    Previous Post Next Post