উমর ফারুক কবিতার লেখক বা রচয়িতা কাজী নজরুল ইসলাম

     উমর ফারুক 

    কাজী নজরুল ইসলাম


    তিমির রাত্রি- এশার আযান শুনি। দূর মসজিদে প্রিয়-হারা কার কান্নার মত এ-বুঝে আসিয়া বিধে!

    আমির-উল-মুমেনিন,

    তোমার স্মৃতি যে আযানের ধ্বনি জানে না মুয়াজ্জিন। তকবির শুনি, শয্যা ছাড়িয়া চকিতে উঠিয়া বসি, বাতায়নে চাই-উঠিয়াছে কি-রে গগনে মরুর শশী? ও-আযান, ও কি পাপিয়ার ডাক, ও কি চকোরীর গান? মুয়াজ্জিনের কন্ঠে ও কি ও তোমারি সে আহ্বান? আবার লুটায়ে পড়ি।




    "সেদিন গিয়াছে"-শিয়রের কাছে কহিছে কালের ঘড়ি। উমর ফারুক। আখেরী নবীর ওগো দক্ষিণ-বাহু। আহ্বান নয় রূপ ধরে এস গ্রাসে অন্ধতা রাহু! ইসলাম-রবি, জ্যোতি তার আজ দিনে দিনে সত্যের আলো নিভিয়া-জ্বলিছে জোনাকির আলো ক্ষীণ। শুধু আঙ্গুলি হেলনে শাসন করিতে এ জগতের দিয়াছিলে ফেলি মুহম্মদের চরণে যে-শমশের ফিরদৌস ছাড়ি নেমে এস তুমি সেই শমশের ধরি আর একবার লোহিত সাগরে লালে-লাল হয়ে মরি। ইসলাম-সে ত পরশ-মানিক তাকে কে পেয়েছে খুঁজি? পরশে তাহার সোনা হল যারা তাদেরেই মোরা বুঝি । আজ বুঝি- কেন বলিয়াছিলেন শেষ পয়গম্বর মোর পরে যদি নবী হত কেউ, হত সে এক উমর।


    অর্ধ পৃথিবী করেছ শাসন ধূলার তখতে বসি খেজুর পাতার প্রাসাদ তোমার বারে বারে গেছে খসি সাইমুম-ঝড়ে। পড়েছে কুটির, তুমি পড়নি কানুয়ে উর্ধ্বের যারা পড়েছে তাহারা, তুমি ছিলে খাড়া ছুঁয়ে।

    Post a Comment

    Previous Post Next Post